বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে এনটিআরসিএ ওয়েবসাইটে নিবন্ধনের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক ।। যেসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক লাগবে, সে সব প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৭ মে’র মধ্যে শূন্যপদের নাম ও তালিকাসহ বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের (এনটিআরসিএ) ওয়েবসাইটে নিবন্ধন করতে হবে। এই নিবন্ধন কাজ শেষ হলে বিগত ১২টি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় পাস করা প্রার্থীদের আবেদনের মাধ্যমে নিয়োগ দেবে সরকার।
বুধবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মুহম্মদ সাইফুল্লাহ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই সব তথ্য জানানো হয়।
এনটিআরসিএ’র চেয়ারম্যান এএমএস আজহার বুধবার রাতে সাংবাদিকদের জানান, শূন্যপদের বিপরীতে প্রার্থীরা আবেদন করলে আমরা একটি মেধা তালিকা করব। সেখান থেকে প্রতিষ্ঠানকে নিয়োগ করতে হবে। উপজেলাভিত্তিক ওই তালিকায় মোট শূন্যপদের অতিরিক্ত ২০ শতাংশ প্রার্থীকে তালিকাভুক্ত করা হবে।
বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগ দুর্নীতি বন্ধে গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয় এক পরিপত্রে (শিক্ষক নিয়োগে) অনুসরণীয় পদ্ধতি জারি করে। সে অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগের লক্ষ্যে প্রার্থী বাছাইয়ের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে এনটিআরসিএকে। জানা গেছে, এ পরিপ্রেক্ষিতে অনলাইনে আবেদন গ্রহণ করে সফটওয়্যারের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেধার ভিত্তিতে প্রার্থী বাছাই কার্যক্রম শুরু হবে। প্রার্থী বাছাই কার্যক্রমের পূর্বশত হিসেবে প্রতিটি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এই নিবন্ধন করাচ্ছে এনটিআরসিএ।
মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, এই প্রার্থী বাছাই কার্যক্রমের পূর্বশর্ত হিসেবে প্রতিটি বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে এনটিআরসিএ’র ওয়েবসাইটে www.ntrca.gov.bd গিয়ে বাধ্যতামূলকভাবে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।
উল্লেখ্য, গত বছরের ২২ নভেম্বর শিক্ষা মন্ত্রণালয় বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ ও প্রত্যয়ন বিধিমালা সংশোধন করে। এতে ntrca শিক্ষক নিয়োগে পরিচালনা পর্যদের অনেকাংশে ক্ষমতা খর্ব হয়ে যায়।

SHARE