ভাইরাল সারাহাহ

আরব বিশ্ব জয় করার পর ছুটেই চলছে সারাহাহ অ্যাপের জয় রথ। প্রতিনিয়তই বিশ্বজুড়ে বাড়ছে সারাহাহ ভক্তের সংখ্যা।  বাংলাদেশে অ্যাপটি দেরিতে পরিচিতি পেলেও ইতোমধ্যেই ব্যবহারকারীদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ম্যাসেজিং অ্যাপটি।

তরুণ প্রজন্মের অনেকেই এখন ডুবে আছেন সারাহাহ অ্যাপের নেশায়। আরবী এই শব্দটির অর্থ সততা, সরলরতা বা অকপটতা।

 

এখানে নিজের পরিচয় গোপন রেখে সারাহাহ অ্যাপটিতে অ্যাকাউন্ট আছে এমন পরিচিত কিছু ব্যক্তিকে ম্যাসেজ করে প্রশ্ন বা প্রশংসাসূচক বাক্য লিখে পাঠানো যায়।

sarahah-techshohor

তবে যাকে প্রশ্ন করা হচ্ছে তিনি সরাসরি অ্যাপের মাধ্যমে কোনো জবাব দিতে পারবেন না। অ্যাপের মাধ্যমে পাওয়া বার্তাটির উত্তর দিতে হলে অন্য কোনো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বার্তাটি শেয়ার করে তারপর তাকে উত্তরটি দিতে হবে।

অ্যাপটি তৈরি করেছেন সৌদিআরবের তরুণ ডেভেলপার জায়ান আল-আবিদিন তৌফিক।

গত ৫ জুন অ্যাপ স্টোরে উন্মুক্ত হওয়ার পর প্রায় দেড় মাসের মাথায় ফেইসবুক, স্ন্যাপচ্যাট ও ইনস্টাগ্রামকে পেছনে ফেলে দেয় সারাহাহ। অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোরের র‌্যাংকিয়েও ৫ নম্বরে চলে আসে।

SHARE