” যুক্তির আঘাতে মুক্তির বিনির্মাণ ” : শ্রেয়া ঘোষ

ইতিহাস ঘেটে আমরা যে ফলাফল পেয়েছি সেখানেও খোদাই করা আছে “যুক্তিতে মুক্তি” এই বেদবাক্যটি । প্রতিটি বিতার্কিক স্ব স্ব আত্মা দিয়ে বিশ্বাস করে যুক্তিই পারে মানুষের জীবনের ছন্দ পালটাতে । যুক্তি ছাড়া কথা ঠিক লবণহীন তরকারীর মতো । লবণ ছাড়া যেমন তরকারি বিস্বাদ ঠিক অনুরুপভাবে যুক্তি ছাড়া তর্কও বিস্বাদ । এই শতাব্দীতে এসে আমরা যারা যুক্তিহীনতায় ভুগছি তাদের করুণ অবস্থা ঠিক পাহাড়ে মুসিক প্রসবের সমান । একবিংশ শতাব্দীর সবচেয়ে বৃহৎ চ্যালেঞ্জ হলো যুক্তিতে পরিপূর্ণ একটি জাতির সৃজন করা । আজো অনেকেই ভাবে যুক্তি মানে ঝগড়া।  কিন্তু এই মন্তব্যের আমি সর্বক্ষণ বিরুদ্ধাচরণ করে এসেছি, করছি এবং ভবিষ্যতেও করবো ।
শুধু বিতর্কের মঞ্চে নয় আমরা যুক্তি দিয়ে জয়লাভ করতে পারি অনেক কঠিন সমস্যাকেও ।  ব্যক্তিজীবনে প্রতিনিয়তই কিছু না কিছু সমস্যা আমাদেরকে আষ্টেপৃষ্ঠে বেঁধে রাখে ।  এই সমস্যাগুলোর সমাধান আমরা যদি যুক্তি দিয়ে করতে পারি তাহলে হয়তো আমাদের মানসিক ভাবে বিদ্ধস্ত হতে হয় নাহ ।  আমাদের রঙিন-সুখময় জীবনকে দুর্বিষহ করতে সক্ষমতা রাখে দৈনন্দিনের কিছু গ্লানি । যুক্তির আলোয় যদি আমরা এই গ্লানি গুলোকে মুছার প্রচেষ্টা চালাই তাহলে বোধহয় আমাদের সকলের জীবন-ই অনেক মধুর হবে ।
আমরা জাতে মাতাল । কোনো কিছু হুট করেই করে ফেলি । যুক্তিগুলো একটিবার খোঁজারও চেষ্টা করি নাহ । যুক্তি দিয়ে সেই বিষয়টি ভাবলে হয়তো আজ আমরা অনেকটা পথ এগিয়েই যেতাম । আধুনিক পথে চলতে চলতে আমরা পথভ্রষ্ট হই আমাদের কিছু গোঁড়ামির জন্য । যুক্তির পথে হাঁটলে আমরা পাবো মুক্তির সন্ধান । যেই মুক্তি জন্ম দেবে আমাদের নতুন করে । জন্ম দেবে এক যুক্তিসংগত আগামীর ।

“যেখানে সবাই আলোর পথের পথিক হবে
পাবে এক সুন্দর জীবন
যুক্তিতে মুক্তি হোক সকল মানবের
উদয় হোক সকলের সু-বুদ্ধি”

লেখিকা: খুদে বিতার্কিক